স্বাস্থ্য

অনিদ্রা? রাতে ঘুম আসছে না? এই রোগ থেকে বাঁচার পাঁচ ঘরোয়া টোটকা

অনেক সময় মাঝরাতে হঠাৎ ঘুম ভেঙে যাওয়ার পর যতই চেষ্টা করুন ঘুম আর কিছুতেই আসতে চায় না৷ বাধ্য গোটা রাত বই পড়ে বা গান শুনেই কাটিয়ে দিতে হয়৷ এতে পরের দিনটায় অনেক সমস্যা হয়। এমনটা হতে পারে হয়তো গোটা দিনটা ঝিমিয়েই কেটে গেল কিংবা অসম্ভব ক্লান্তির শিকার হতে হল আপনাকে৷

যদি প্রতিনিয়ত আপনার সঙ্গে এমনই ঘটতে থাকে তবে বুঝতে হবে আপনি ইনসমনিয়া বা অনিদ্রার শিকার৷ অনিদ্রা কিন্তু আপনার স্বাস্থ্যের উপর গভীর প্রভার ফেলতে পারে৷ তবে অনিদ্রা থেকে বাঁচতে আপনি কিছু ঘরোয়া টোটকা বেছে নিতে পারেন৷

১. সবসময় খেয়াল রাখবেন যাতে আপনার বিছানা খুব বেশি শক্ত বা খুব বেশি নরম যাতে না হয়৷ আপনার বালিশও যাতে সঠিক ভারসাম্য অনুযায়ী হয় সেদিকেও খেয়াল রাখবেন৷ শুতে যাওয়ার আগে দেখে নিন যাতে আনার শোয়ার ঘর একেবারে শান্ত ও অন্ধকার থাকে৷

২. দুপুরের পর থেকে চা বা কফি পারলে একেবারেই খাওয়া বন্ধ করে দিন৷ এতে যে পরিমাণ ক্যাফেন থাকে তা মস্কিষ্ককে দীর্ঘক্ষণ সতেজ রাখে ফলে ঘুমের ব্যঘাত ঘটে৷ আপনি যদি অনিদ্রার শিকার হন তবে ক্যাফেন যুক্ত খাবার বা পানীয় খাওয়ার অভ্যেস একেবারেই ত্যাগ করুন৷

৩. প্রতিদিন ঘুমের নির্দিষ্ট সময় ঠিক করে নিন৷ সপ্তাহের শেষেও যাতে এই নিয়মের ব্যতিক্রম না ঘটে৷ দিনে ঘুমোনোর অভ্যাস ত্যাগ করুন৷ এতে রাতের ঘুমে ব্যাঘাত ঘটতে পারে৷ দিনে না ঘুমোলে রাতের ঘুম খুব সহজেই আসবে৷

৪. ঘুমোতে যাওয়ার সময় ল্যাপটপ বা মোবইল ফোন দূরে সড়িয়ে রাখুন৷ গবেষণায় দেখা গেছে, স্মার্টফোন বা অন্য কোন ইলেক্ট্রনিক্স থেকে যে রশ্মি নির্গত হয় তা মেলাটোনিন হরমোনের পরিমাণ কমিয়ে দেয়৷ এই হরমোনেই মানুষের ঘুমের জন্য প্রয়োজনীয়৷

৫. যারা অনিদ্রার শিকার তারা প্রতিদিন প্রাণায়াম অভ্যাস করতে পারেন৷ এতে মন শান্ত হবে, ফলে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটবে না৷ প্রাণায়ামের ফলে সারাদিনের দুশ্চিন্তাও মন থেকে দূর হবে৷ এতে শরীর, মন ও মানসিক ভারসাম্য বজায় থাকে৷

Leave a Reply

Back to top button
Close