offbeat news

অফিসে বেশি সময় কাটান, হতে পারে ভয়ঙ্কর সমস্যা

আপনি কি ওয়ার্কহলিক? বেশি কাজ করতে ভালোবাসেন? তাহলে অবশ্যই আপনার চিন্তার কারণ আছে। চাকরি হোক বা ব্যবসা, অফিস অন্যের হোক বা নিজের, যারাই প্রয়োজনের বেশি সময় অফিসে কাটান তারা যেকোন সময় হাইপারটেনশনের শিকার হতে পারেন।
অনেকেই রয়েছেন যারা এখনও বুঝতে পারেননি যে তাঁরা হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন যা মাক্সড হাইপারটেনশন নামে পরিচিত। যা অনেকসময় নজর এড়িয়ে যায় এবং চিকিৎসায় ধরা পড়ে না।
সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যারা চেয়ারে বসে বা অফিসে প্রয়োজনের বেশি সময় কাটান তাঁরা ক্রমশ উচ্চরক্তচাপে ভুগতে শুরু করেন।
প্রতি সপ্তাহে যারা ৩৫ ঘণ্টা বা তাঁর একটু বেশি কাজ করেন এবং যারা ৪৯ ঘণ্টায় কাজ করেন তাঁরা ৭০ শতাংশ বেশি সম্ভাবনা থেকে যায় যে মাক্সড হাইপারটেনশন এবং ৬৬ শতাংশ সম্ভাবনা থেকে যায় যারা সাসটেনড হাইপারটেনশনে আক্রান্ত হওয়ার। যা মূলত ভিতর ও বাইরের উচ্চরক্তচাপের ক্লিনিকাল সেটিং।

সমীক্ষার মূলে রয়েছে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য বিষয়, যেমন কাজের চাপ, বয়স, লিঙ্গ, শিক্ষাগত যোগ্যতা, ধুমপানের অভ্যাস, বিএমআই লেভেল এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যগত বিষয়। মাক্সড এবং সাস্টেন্ড হাইপারটেনশন দ্রুতই হৃদরোগে আক্রান্ত করতে পারে মানুষকে।

বহুবছর থেকে চলা এই সমীক্ষায় বিভিন্ন দিকের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন গবেষকরা। তাঁরা বলছেন রক্তচাপের রিপোর্টের পরিবর্তে পরিধান করা যায় মনিটরিং করা দরকার।
উচ্চ রক্তচাপ হল উচ্চ রক্ত চাপের জন্যে ব্যাবহিত ক্লিনিকাল টার্ম, এবং এটি সবচেয়ে সাধারণ দৈনন্দিন জীবনধারণ জনিত রোগগুলির মধ্যে একটি। এটির এমন একটি অবস্থা বোঝায় যাতে আপনার ধমনী দিয়ে বয়ে যাওয়া রক্ত চাপ সাধারণের থেকে বেশি। সাধারণত, আপনি উচ্চ রক্তচাপে ভুগবেন যদি আপনার রক্তচাপ ক্রমাগত ১৮০/৯০ ছাড়ায়। যদি আপনার রক্তচাপ ১৪০/১২০ এর ওপরে চলে যায় তাহলে আপনার অবস্থার কঠোরতার ওপর নির্ভর করে হাঁসপাতালেও ভর্তি করতে হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close