International

অবশেষে মাস্ক পরলেন ট্রাম্প

করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে শুরু থেকেই বিশেষজ্ঞরা মাস্ক পরতে পরাম’র্শ দিয়ে আসলেও তাতে কান দিচ্ছিলেন না ডোনাল্ড ট্রা’ম্প। অবশেষে এই অবস্থান থেকে সরে এসে মাস্ক পরলেন তিনি। তবে নিজের মাস্ক পরিহিত অবস্থায় তুলতে পাপারাজ্জিদের সুযোগ দেননি যু’ক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট।

মাস্ক পরার ব্যাপারটা বৃহস্পতিবার নিজেই জানান ট্রা’ম্প। এদিন তিনি মিশিগানের ইপসিল্যান্টিতে ফোর্ড অটো কারখানা পরিদর্শনে যান, যেখানে কর্মীরা বর্তমানে রেস্পিরেটর ও অন্যান্য মেডিকেল সরঞ্জামাদি উৎপাদন করছে।

কারখানা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ট্রা’ম্পের হাতে একটি মাস্ক দেখা যায়। জানান, কারখানার ভেতর মাস্কটি পরেছিলেন তিনি। কিন্তু নিজের মাস্ক পরিহিত ছবি নিয়ে সংবাদমাধ্যম মজা করুক এই সুযোগ দেননি বলে জানালেন ট্রা’ম্প।

“আমি একটা মাস্ক পরেছিলাম। কারখানার ভেতর পরেছিলাম। কিন্তু এটা দেখে সংবাদমাধ্যম মজা নিক আমি এটা চাইনি।”

তবে ফোর্ড কার কারখানার প্রায় সবাইকে মাস্ক পরিহিত অবস্থায় দেখা গেছে। করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতেই সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক সবার জন্য এই নির্দেশনা আরোপ করেছে কারখানাটি।

অটো জায়ান্ট কোম্পানিটি থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কোম্পানির চেয়ারম্যান বিল ফোর্ড “পরিদর্শনে আসা প্রেসিডেন্ট’কে মাস্ক পরায় উৎসাহিত করেন। ব্যক্তিগত মত বিনিময়ের সময় তিনি মাস্ক পরেন। তবে পরিদর্শনের বাকি সময়টায় তিনি মাস্ক খুলে ফেলেন।”

চলমান করো’না সংকটে ট্রা’ম্পকে একবারও মাস্ক পরতে দেখা যায়নি। সবার মাস্ক পরার দরকার নেই বলেও মন্তব্য তার। একজন বিশ্বনেতা হিসেবে এটা তাকে মানায় না বলেও একবার মন্তব্য করেছিলেন তিনি। তবে বৃহস্পতিবার মাস্ক পরার পর প্রতিক্রিয়ায় ট্রা’ম্প বলেন, “খুবই সুন্দর, দেখতে খুবই সুন্দর লাগে।”

যু’ক্তরাষ্ট্রে করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্ত-মৃ’ত্যু প্রতিদিনই বাড়ছে। এরপরও ভগ্নদশায় পড়া অর্থনীতিকে চাঙা করতে চলমান লকডাউন উঠিয়ে নিতে ব্যাপক তৎপরতা চালাচ্ছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টায় যু’ক্তরাষ্ট্রে করো’নাভাই’রাসে আরও ১,২৫৫ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। তাতে দেশটিতে মোট মৃ’ত্যু ৯৪ হাজার ৬০০ ছাড়িয়েছে। আ’ক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৭৬ হাজার।

যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খা’রাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close