Doctor Tips

অবিশ্বাস্য ঘটনা! মাতৃদুগ্ধ মারফত শিশুর শরীরে গড়ে উঠছে করোনা প্রতিরোধের ক্ষমতা

: অবিশ্বাস্য ঘটনা! করোনার অ্যান্টিবডি মায়ের শরীর থেকে যাচ্ছে বাচ্চাদের শরীরে! সাম্প্রতিক এক গবেষণা উঠে এসেছে অবাক করা তথ্য। মাতৃদুগ্ধ পান করানোর সময় মায়ের শরীর থেকে দুধের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে অ্যান্টিবডি। অবশ্যই তার জন্য মাকে কোভিড ভ্যাকসিন নিতে হবে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ভ্যাকসিন নেওয়া  মা ৮০ দিন পর্যন্ত শিশুর শরীরে বুকের দুধের মাধ্যমে প্রতিরক্ষামূলক অ্যান্টিবডি সরবরাহ করতে পারে।
গবেষণা বলছে, মায়ের দুধে উপস্থিত আইজিএ এবং আইজিজি অ্যান্টিবডিগুলি বাচ্চাদের মধ্যে সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দিচ্ছে। টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার পরই ঘটছে এই অবিশ্বাস্য ঘটনা। অ্যান্টিবডিগুলির উচ্চ স্তরে রয়েছে বলেও জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।  

আমেরিকান জার্নাল অফ প্রসেসট্রিক্স অ্যান্ড গাইনোকোলজিতে প্রকাশিত সমীক্ষা অনুসারে, IgA এবং IgG অ্যান্টিবডি প্রথম টিকা নেওয়ার পর ১৪ থেকে ২০ দিনের মধ্যেই প্রতিরোধ ক্ষমতা-পর্যায়ে পৌঁছে যাচ্ছে।
গবেষণা পত্রের লেখক ও প্রসূতি- স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ জ্যানি  বলেছেন, “আমাদের গবেষণায় ভ্যাকসিনের প্রথম শট দেওয়ার দু’সপ্তাহ পরে মায়ের দুধে কোভিড -১৯ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার অ্যান্টিবডিগুলি প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি পাওয়ার লক্ষণ দেখা গিয়েছে।  আমাদের এই গবেষণাটি প্রায় তিন মাস ধরে চলেছে। ” 

তাঁর কথায়, “অধ্যয়ন শেষে অ্যান্টিবডিগুলির মাত্রা এখনও বেশি রয়েছে, সুতরাং সদ্যোজাত বা মায়ের দুধ পান করা শিশুদের জন্য সুরক্ষা আরও দীর্ঘতম হতে পারে।”
এই গবেষণায় পাঁচজন মা অংশগ্রহণ করেছিলেন। যাঁরা দু-ডোজ ফাইজার-বায়োএনটেক করোন ভাইরাস ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন।  তাদের থেকে মাতৃদুগ্ধের নমুনা নেওয়া হয়। সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ৮০ দিন ট্র্যাক করা হয় তাঁদের।
 তবে, এই নিয়ে গবেষণা এখনও জারি রয়েছে। কারণ, এতে শিশুরা কতটা সুরক্ষিত থাকবে সেটাও দেখার বিষয়। পাশাপাশি কতদিন তাদের শরীরে অ্যান্টিবডি থাকছে, বা এর প্রভাবে কী কী ঘটছে সেগুলিও পর্যবেক্ষণ করার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। 

Back to top button