Islam

আল্লাহ যাকে ইচ্ছা বহুগুণ প্রবৃদ্ধি দান করেনঃ আজহারী

বর্তমান সময়ের আ’লোচিত বক্তা মিজানুর রহমান আজহারী। তিনি খুব কম সময়ের মধ্যে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে ব্যাপক গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেছেন। বিশেষ করে তাঁর সুমধুর কণ্ঠ এবং ইংরেজিতে পারদর্শিতা হওয়ার কারনে তরুণদের হৃদয়ের মণিকোঠায় জায়গা করে নিয়েছেন। এই পর্যন্ত অনেক তরুণ তাঁর হাত ধরে ইস’লাম গ্রহন করেছেন।

সম্প্রতি, এই জনপ্রিয় বক্তার নাম ভাঙিয়ে দেশ ও দেশের বাইরে প্রবাসীদের কাছ থেকে অনেকেই আর্থিক অনুদান সংগ্রহ ও চাঁদা তুলছেন বলে অ’ভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (১৩ মা’র্চ) সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে আজহারী এমন অ’ভিযোগ করেছেন।

আজহারীর স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে দেয়া হলো…

বাংলাদেশে আমা’র গড়া কোন প্রতিষ্ঠান নেই। কিন্তু ইদানীং দেখতে পাচ্ছি অনেকে আমা’র নামে প্রতিষ্ঠান বানিয়ে সেটাতে সাহায্যের জন্য প্রবাসীদের কাছে আর্থিক সহযোগিতা চাইছেন। আসলে, কারো নাম ব্যাবহার করে প্রতিষ্ঠান করতে চাইলে আগে তার কাছ থেকে অফিসিয়ালি পারমিশন নিতে হয়।

আমা’র নামে কোন প্রতিষ্ঠান হলে, স্বাভাবিক ভাবেই সেটার যাবতীয় দায়ভার আমা’র উপর বর্তায়। আর আমি আমা’র নাম দিয়ে এরকম কোন প্রতিষ্ঠান করার অনুমতি কাউকে দেইনি।

কে কোন উদ্দেশ্য নিয়ে এগুলো করছেন সেটাও আম’রা জানিনা এবং জানার সুযোগও নেই। আমি যদি কখনো প্রাতিষ্ঠানিক কাজে হাত দেই, তখন সেটা আমিই সবাইকে জানিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবেই করব ইনশাআল্লাহ।

তাই, আমা’র নামে প্রতিষ্ঠান করা, আমাকে কোন প্রতিষ্ঠানের এডভাইজরি বোর্ডে রাখা এবং আমা’র নাম দিয়ে যে কোন ধরনের আর্থিক অনুদান সংগ্রহ করা ও চাঁদা তোলা থেকে বিরত থাকার জন্য সবাইকে বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি।

এসব ব্যাপারে আমাদের শক্ত অবস্থানের কারণ হল: এজাতীয় প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে প্রায়শই নানা ধরনের অনিয়ম, অর্থ কেলেংকারী এবং চাইল্ড এবিউজের মত ঘটনাও শোনা যায়। যেহেতু প্রতিষ্ঠানগুলো আমা’র নিয়ন্ত্রনাধীন নয় বা আমি এগুলোর দেখভাল করছিনা। তাই, আমি এগুলো থেকে সম্পূর্ণভাবে দায়মুক্ত। এগুলো আমা’র ভেবে কেউ প্রতারিত হবেন না।

আর স্বাভাবিক ভাবে আপনাদের নিয়মিত দানের অংশ হিসেবে যে কোন ভালো ধ’র্মীয় প্রতিষ্ঠানে কিংবা ম’সজিদ উন্নয়নে অথবা এতিমখানায় মুক্তহস্তে দান করুন। এতে কারো কোন আ’পত্তি থাকার কথা নয়।

‘আল্লাহর রাস্তায় দানের উপমা হচ্ছে এমন একটি শস্যবীজের মতো, যাতে উৎপন্ন হয় সাতটি শিষ আর প্রতিটি শিষে থাকে শত শস্যদানা। আল্লাহ যাকে ইচ্ছা বহুগুণ প্রবৃদ্ধি দান করেন। আল্লাহ তায়ালা অ’ত্যন্ত প্রাচুর্যময়, সর্বজ্ঞ।’
[বাকারাহ: ২৬১]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close