Technology

এবার তথ্য ফাঁস Moto স্মার্টফোনের, কী থাকছে আসন্ন ফোনে

সম্প্রতি লঞ্চ হওয়ার আগে তথ্য ফাঁসের ঘটনা সামনে এলো Moto G Stylus 5G স্মার্টফোনের। প্রেস রেন্ডারের মাধ্যমে আসন্ন স্মার্টফোনের ডিজাইনটি প্রকাশ করা হয়েছে। ফাঁস হওয়া তথ্য অনুযায়ী সংস্থার আসন্ন ফোনে থাকতে পারে একটি Qualcomm Snapdragon 480 SoC এবং একটি 5,000mAh ক্ষমতার ব্যাটারি প্যাক। পাশাপাশি ব্লুটুথ এসআইজি শংসাপত্রের সাইট (Bluetooth SIG certification site) এবং গীকবেঞ্চ বেঞ্চমার্কিং প্ল্যাটফর্মে (Geekbench benchmarking) সংস্থার আসন্ন ফোনের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। এর আগে একটি তালিকা Moto G Stylus 5G স্মার্টফোনের কোডনেম হিসেবে ‘Denver’ নামের কথাও উল্লেখ করেছিল।

ফাঁস হওয়া ছবি থেকে স্মার্টফোনের নকশার একটি ধারণা মিলেছে। ছবি অনুযায়ী, Moto G Stylus 5G ফোনের নিচের অংশে থাকতে পারে একটি স্পিকার গ্রিল (speaker grille), একটি ইউএসবি (USB) টাইপ-সি পোর্ট এবং একটি ৩.৫ মিমি হেডফোন (headphone) জ্যাক।

গতমাসে টিপস্টার নিলস অ্যারেনসমিয়ার (@NilsAhrDE) একটি টুইট করে Moto-র আসন্ন স্মার্টফোনটির বেশকিছু রেন্ডার উল্লেখ করেছে। পাশাপাশি টিপস্টার দাবি করেছে সংস্থার ফোনটি পাওয়া যাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।

অন্যদিকে Moto G Stylus 5G স্মার্টফোনটি সিঙ্গেল স্কোরে ৫০২ পয়েন্ট এবং মাল্টি স্কোর টেস্টে ১,৬৫১ পয়েন্ট অর্জন করেছে বলে উল্লেখ করেছে গীকবেঞ্চ । পাশাপাশি তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে আসন্ন ফোনে থাকতে পারে একটি Snapdragon 480 SoC এবং Android 11 ব্যবস্থা। Moto G Stylus 5G স্মার্টফোনে 6GB RAM পরিষেবাও দেওয়া হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে তালিকায়। অন্যদিকে ব্লুটুথ এসআইজি তালিকা আবার আসন্ন ফোনটি Bluetooth v5.1 কে সমর্থন করবে বলে পরামর্শ দিয়েছে।

টেকনিকনিউজ (TechnikNews) Moto G Stylus 5G স্মার্টফোন সম্পর্কে জানিয়েছে, এই ফোনে রাখা হতে পারে একটি Snapdragon 480 SoC ব্যবস্থা। পাশাপাশি দুটি স্টোরেজের বিকল্পে স্মার্টফোনটি বাজারে মিলতে পারে বলেও উল্লেখ করেছে টেকনিকনিউজ। Moto G Stylus 5G স্মার্টফোনে 64GB + 128GB স্টোরেজ এবং 4GB + 6GB RAM স্টোরেজের বিকল্পে পাওয়া যেতে পারে বলে আশাকরা হচ্ছে।

ফাঁস হওয়া তথ্য অনুযায়ী Moto G Stylus 5G ফোনে থাকতে পারে একটি quad rear ক্যামেরা সেটআপ। এই সেটআপে যুক্ত থাকতে পারে একটি 48-megapixel primary সেন্সার, একটি 8-megapixel ultra-wide সেন্সার, একটি 2-megapixel dept সেন্সার এবং একটি 5-megapixel macro লেন্স। এছাড়াও সেলফির জন্য মিলতে পারে একটি 16-megapixel selfie ক্যামেরার ব্যবস্থা।

লাল-নীল-গেরুয়া…! ‘রঙ’ ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা ‘খাচ্ছে’? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম ‘সংবাদ’!

‘ব্রেকিং’ আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের।

কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে ‘রঙ’ লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে ‘ফেক’ তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই ‘ফ্রি’ নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.
হ্যাঁ, আমি অনুদান করতে ইচ্ছুক >

Back to top button