বিনোদন

ওজন ছিল ৯৫ কেজি, ফ্যাশন শো’তে সুযোগ পাননি সোনাক্ষী – আগাম বার্তা

মুম্বই: তাঁর সৌন্দর্যে মুগ্ধ দর্শকের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু এক সময়ে স্থূল চেহারার জন্য অনেক তির্যক মন্তব্য শুনতে হয়েছিল। সম্প্রতি এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে এমনই জানান সোনাক্ষী সিনহা।

বলিউডে আসার আগে তাঁর ওজন ছিল ৯৫ কিলো। কিন্তু প্রথম ছবিতে অভিনয় করার আগেই ৩০ কিলো ওজন কমিয়েছিলেন তিনি। দর্শকরা প্রশংসা করলেও, অন্যান্য অভিনেত্রীদের সঙ্গে তুলনা করে ইন্ডাস্ট্রির লোক জন ও সংবাদমাধ্যমের দ্বারাই বডি শেমিং-এর শিকার হয়েছিলেন তিনি।

সোনাক্ষী বলছেন, আমি ৩০ কিলো ওজন কমিয়েছিলাম প্রথম ছবি করার আগে। ছবি মুক্তির পরে দর্শকরা বাহবা দিয়েছিলেন। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রির লোকজন ও মিডিয়া আমায় অনবরত ফ্যাটশেমিং করেছিল। আমার তখন সত্যিই খুব খারাপ লেগেছিল।

তবে শুধু রূপোলি দুনিয়াতেই নয়। কলেজে পড়াকালীন সহপাঠীদের কাছেও স্থূল ওজনের জন্য অনেক রকমের কথা শুনতে হয়েছিল তাঁকে।

সোনাক্ষীর কথায়, আমার ওজন ছিল ৯৫ কিলো। আমি ছোট বেলা থেকেই বেশ মোটা ছিলাম। কিন্তু তাও বিভিন্ন খেলাধূলার সঙ্গে আমি যুক্ত থাকতাম স্কুলে। ছেলেরা আমায় নানা রকম নামে ডাকত তখন। খেলায় কখনও প্রধান ভূমিকায় আমি স্থান পেতাম না।

একবার কলেজের ফ্যাশন শোয়ে অংশ নিতে গিয়েও বডিশেমিং-এর শিকার হয়েছিলেন তিনি। সোনাক্ষী জানিয়েছেন, একবার আমরা কলেজে বার্ষিক ফ্যাশন শো করেছিলাম। আমার মডেল হওয়ার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু আমারই এক সহপাঠিনী আমায় বলেছিল, তুমি স্টেজে আলোর দিকটা দেখ। আমি তখন বলেছিলাম, কেন! আমি তো র‍্যাম্পে হাঁটতে চাই। তখন সে বলেছিল, র‍্যাম্পে হাঁটা জন্য তোমার চেহারা উপযুক্ত নয়। আমার তখন খুব খারাপ লেগেছিল।

তবে এখন সেই সোনাক্ষীর সৌন্দর্যেই কূপোকাত তাঁর ভক্তরা তা বলাই বাহুল্য। প্রসঙ্গত, সোনাক্ষী ছাড়াও বলিউড থেকে বিদ্যা বালন, হুমা কুরেশি, নেহা ধুপিয়া, প্রিয়ঙ্কা চোপড়াও বডিশেমিং-এর শিকার হয়েছেন।

Leave a Reply

Back to top button
Close