Technology

কম দামে উন্নত ফেস শিল্ড, নিরাপত্তা দেবে ভাইরাস থেকে

করোনা অতিমারী কার্যত গোটা বিশ্বকে এক নতুন দিকের দিকে নিয়ে গিয়েছে। ধীরে ধীরে মানুষকে অভ্যস্ত হতে হয়েছে ডিজিটাল মাধ্যমের সঙ্গে। পাশপাশি পরিবর্তন করতে হয়েছে নিজেদের স্বাভাবিক জীবন যাত্রার। এমনকি নিজেদের জীবনের সঙ্গে যোগ করে নিতে হয়েছে মাস্ককেও। এছাড়াও রয়েছে একাধিক বিধিনিষেধ। এই সকলের মধ্যেও এবার অ্যামাজনের তরফে গ্রাহকদের জন্য নিয়ে আসা হল এক নতুন সুবিধা।

 

এই মুহূর্তে মানুষের কাছে নিরাপত্তা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষজ্ঞদের তরফে বারংবার জানানো হয়েছে প্রয়োজন না পরলে যাতে মানুষজন বাইরে না আসেন। এমনকি এও জানানো হয়েছে বাড়ির বাইরে এলে যেন মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করেন। কিন্তু কেবল মাস্ক ই যথেষ্ট নয়। সম্পূর্ণ ভাবে নিজেদের মুখ নিরাপদ রাখার জন্য যথেষ্ট প্রয়োজনীয় ফেস শিল্ড। সেই কারণে ইতিমধ্যে বাজারে আনা হয়েছে বেশ কিছু ফেস শিল্ড। যা ব্যবহার অরছেন অনেকেই। আর এবারে অ্যামাজনের তরফেও আনান হয়েছে নতুন ধরনের ফেস শিল্ড।

 

সম্পূর্ণ মুখ ঢাকা থাকার ফলে এই ফেস শিল্ডের জেরে অনেকটাই নিরাপদ থাকতে পারেন সাধারণ মানুষজন। অ্যামাজনের তরফে বাজারে আনা হয়েছে oriley orfsno4 175 micron disposable face shields। মাত্র ৫২ টাকাতে পাওয়া যাবে এই ফেস শিল্ড। এছাড়াও রয়েছে ক্যাশব্যাকের সুবিধা। অ্যামাজন পে বা icici ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করে এই ফেস শিল্ড কিনলে গ্রাহকেরা পাবেন ক্যাশব্যাকের সুবিধা।

 

১৭৫ মাইক্রনের এই শিল্ড হওয়ার ফলে যে কোন ধরনেরজীবানু থেকে মুখ কে রক্ষা করে এই শিল্ড। সম্পূর্ণ ভাবে মুখ কে ঢেকে রাখা বলে সুবিধা হয় সকলের। এছাড়াও মাথার কাছে স্পঞ্জ থাকার জেরে এটি পরলে কপালে লাগবে না। বরং আরাম পাবেন। শ্বাস নেওয়ার ক্ষেত্রেও কোন অসুবিধা হবে না এবং এটি পরিস্কার করতেও পারবেন সহজেই। অল্প দামের মধ্যে এই শিল্ড আনার ফলে গ্রাহকদের কাছে যথেষ্ট জনপ্রিয় হবে অ্যামাজন। পাশপাশি যারা এই মুহূর্তে ফেস শিল্ড কেনার কথা ভাবছেন তাদের কাছে এই শিল্ড যথেষ্ট সুবিধাজনক হবে বলেও মনে করা হচ্ছে।

লাল-নীল-গেরুয়া…! ‘রঙ’ ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা ‘খাচ্ছে’? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম ‘সংবাদ’!

‘ব্রেকিং’ আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের।

কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে ‘রঙ’ লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে ‘ফেক’ তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই ‘ফ্রি’ নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.
হ্যাঁ, আমি অনুদান করতে ইচ্ছুক >

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।

Back to top button