International

করোনা নিয়ে ভারতকে বিশেষ অনুরোধ জানাল চিন

বেজিং: কোভিড-১৯ বা করোনা নিয়ে এবার ভারতকে বিশেষ আহ্বান জানাল বেজিং। চিনের তরফে বলা হয়েছে, ভারতের কোনও ভাবেই এই মারণ ভাইরাস বর্ণনার ক্ষেত্রে ‘চিনা’ শব্দটি ব্যবহার করা উচিৎ না। এর ফলে আন্তর্জাতিক সহযোগিতার ওপর বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে জানিয়েছে চিন।
মঙ্গলবার ফোনে স্টেট কাউন্সিলর এবং বিদেশ মন্ত্রী ওয়াং ইয়ি জানিয়েছেন, চিন আশা করে যে ভারত “চিনা ভাইরাস” শব্দটি ব্যবহারে “সংকীর্ণ মানসিকতার” পরিচয় দেওয়ার তীব্র বিরোধী।
উল্লেখ্য, ৩১ ডিসেম্বর চিনে প্রথম এই রোগের মারণ প্রকোপ দেখা দিয়েছিল। চিনা সরকারের বক্তব্য, হতে পারে এই মারণ ভাইরাস প্রথমে চিনে দেখা গিয়েছে, কিন্তু এমন কোনও প্রমাণ নেই, যার দ্বারা বলা যেতে পারে চিন এই ভাইরাসের উৎস। বর্তমানে চিনা কূটনৈতিকরা পৃথিবীর বিভিন্নন সরকারকে “চায়না ভাইরাস” শব্দটি ব্যবহার না করার জন্য প্রচার চালাবে।
চিন যখন করোনার ওপর থেকে ‘চিনা ভাইরাস’ শব্দটি মুছতে মরিয়া তখন চিন ‘যুদ্ধের জৈবিক অস্ত্র’ হিসেবে এই মারণ করোনা ভাইরাস বানিয়েছিল বলে দাবি করে ২০ ট্রিলিয়ন ডলারের মামলা দায়ের করলেন আমেরিকার ল্যারি ক্লেম্যান নামের এক আইনজীবী ও তার আইনি প্রতিষ্ঠান ফ্রিডম ওয়াচ ও বাজ ফটোজ।

ওই মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, মার্কিন সেনা অথবা অন্য কোনও দেশ যারা চিনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে পারে, তাঁদের ধ্বংস করতেই এই মারণ ভাইরাস তৈরি করেছে চিন। মামলাকারীদের দাবি চিনের তৈরি জৈবিক অস্ত্রের ফলাফল হচ্ছে এই মারণ ভাইরাস। আর তাই তাঁরা ২০ ট্রিলিয়ন ডলার দাবি করেছে চিনের কাছে।
অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, “প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি চীন ‘যুদ্ধের জৈবিক অস্ত্র’ হিসেবে তৈরি করেছে। চীনের ইচ্ছা বা অনিচ্ছা যেভাবেই হোক এটি বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ায় মার্কিন আইন লঙ্ঘনের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক আইন, চুক্তি ও নিয়ম লঙ্ঘন হয়েছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close