Islam

কি’য়ামতের পূর্বে দুনিয়া থেকে যে ১০ টি জিনিস তুলে নিবেন হযরত জিবরাঈল (আঃ) !

কি’য়ামতের পূর্বে দুনিয়া- হযরত জিবরাঈল (আ:) ২৪ হাজার বার দুনিয়াতে মোহাম্ম’দ (সা:) এর দরবারে এসেছিলেন। এক সাক্ষাতে হুজুর (সা:) জিবরাঈল (আ:) কে জিঙ্গাসা করেছিলেন, হে জিবরাঈল!

আমা’র ই’ন্তেকালের পরে তুমি কতবার দুনিয়াতে আসবে? তিনি বললেন, ১০ বার আসব এবং প্রতিবারই একটি করে জিনিস তুলে নেব।

যে দশটি জিনিস তুলে নিবেন হযরত জিবরাঈল (আ:)। ১. বরকত তুলে নেব ২. এবাদত থেকে মজা তুলে নেব ৩. পরস্পর মহব্বত তুলে নেব ৫. হক বিচার তুলে নেব

৬. ছবর (ধৈর্য্য) তুলে নেব ৭. আলেম থেকে সত্য কথা তুলে নেব অর্থাৎ একদল আলেম জানা সত্ত্বেও হক কথা বলবে না ৮. ধনীদের সৎ সাহস উঠিয়ে নেব ৯. ঈ’মানদার থাকবে না , ঈ’মান উঠে যাবে।

১০. ক্বারীদের কাছ থেকে কোরআনের তেলোয়াত তুলে নেব , অর্থাৎ কোরআনকে উঠিয়ে নেব । আফসোস আমাদের সমাজে সর্বশেষ ৯ ও ১০ নাম্বারটি বাকী’ রয়েছে, যেদিন এদুটি উঠে যাবে সেদিনই হবে শেষ সময় হে মানুষ তুমি ভয় কর সেদিনকে, ভুল পথ থেকে সরে দাড়াও সঠিক আলোয় জীবন গড়। আল্লাহ-পাক সবাইকে সঠিক পথে চলার তৌফিক দান করুক।আমিন।

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাঙালিরা নিজেদের টাকায় নির্মাণ করছে ‘আল আকসা’ ম’সজিদ

বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রেরণকারী শীর্ষ দেশগুলোর একটি দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্যবসা করা তুলণামূলক সহ’জ। তাই প্রতিবছর সে দেশে ব্যবসা সম্প্রসারণ করছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। মুনাফা ভালো হওয়ায় ২০১৭ সালে ৮.৫ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে প্রবাসীরা। পুরনোদের পাশাপাশি নতুন প্রবাসীরা খুলছে নতুন নতুন দোকানপাট।

লালিত স্বপ্নকে হাতের মুঠোয় পেতে প্রতিনিয়তই সে দেশে পাড়ি জমাচ্ছে হাজারো বাংলাদেশি তরুণ, যাদের মধ্যে মু’সলিম প্রবাসীর সংখ্যাই বেশি। দক্ষিণ আফ্রিকার সব অঞ্চল মু’সলিমপ্রধান না হওয়ায় সেখানে নিজেদের ধ’র্ম পালন করার সুব্যবস্থা নেই বললেই চলে। কোনো কোনো এলাকা এমনও আছে, যেখানে স্থানীয় মু’সলিম নাগরিক মোটেই নেই। ফলে সেখানে ম’সজিদের সংখ্যাও কম।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ তৃপ্তিসহকারে আদায় করার জন্য নেই কোনো ম’সজিদ। পবিত্র জুমা’র নামাজ আদায় করার জন্য যেতে হয় অনেক দূরে। তাই বিভিন্ন বাসা বা গ্যারাজ ভাড়া করে সেখানে নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা করে প্রবাসীরা। এভাবেই চলে আসছিল বাঙালি প্রবাসীদের ম’সজিদ ‘ম’সজিদে আকসা’র কার্যক্রম। এবার এই সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্য বাঙালিদের উদ্যোগে সেখানে জমি কিনে তৈরি করা হচ্ছে নতুন ম’সজিদ, যার নাম থাকবে ‘আল আকসা’ ম’সজিদ।

এরই মধ্যে ম’সজিদটি নির্মাণের জন্য একজন প্রবাসী বাঙালির অর্থায়নে দক্ষিণ আফ্রিকার উত্তর-পশ্চিম প্রদেশের রাজধানী শহর মাফেকিংয়ের ইটসোসেং টাউনে জমি কেনা হয়েছে। শুরু করা হয়েছে ৮৫০ বর্গফুটের একটি ম’সজিদের নির্মাণকাজ, যা শেষ করতে খরচ হবে আনুমানিক ১.৫ মিলিয়ন আফ্রিকান র‌্যান্ড, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৯০ লাখ টাকা।

ম’সজিদের ই’মাম হাফেজ মাওলানা আব্দুল হালিম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাঙালিদের এই উদ্যোগে এখানকার সব প্রবাসী মু’সলিম বেশ খুশি। এখানে বাঙালিদের পাশাপাশি অনেক ভারতীয় ও পাকিস্তানি মু’সল্লিও আছে। আম’রা আশা করছি, বাঙালিদের এই ম’সজিদটি হবে দক্ষিণ আফ্রিকার একটি আদর্শ ম’সজিদ। এখানে চালু করা হবে দাওয়াতে তাবলিগের কাজ।

থাকবে মু’সলিম ছেলে-মেয়েদের বিনা মূল্যে ইস’লামী শিক্ষা গ্রহণের ব্যবস্থা। এ ছাড়া বিনা মূল্যে চিকিৎসা, ত্রাণ বিতরণসহ জনসেবামূলক কাজ তো থাকছেই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close