International

কীভাবে বেশিদিন বাঁচবেন, ‘সিক্রেট’ জানালেন ১১২ বছরের বৃদ্ধ

টোকিও: ‘জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে কোথা কবে’ এ প্রবাদ বাক্য মিথ্যে করার মতো কোনও বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার আজও হয়নি। কিন্তু তারও মধ্যে কিছু মানুষ থাকেন যারা মৃত্যুকে জয় করেননি বটে, কিন্তু নিজের বয়স দিয়ে অন্যকে চমকে দেওয়ার সাধ্য রাখেন। তেমনই এক ব্যক্তি গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে। যার বর্তমান বয়স ১১২ বছর ৩৪৪ দিন। বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক পুরুষ মানুষ তিনিই।
যুবক বয়সে পেশায় একজন কৃষক ছিলেন তিনি। নিজের দীর্ঘায়ুর সিক্রেট হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, ‘কখনও রাগ করা চলবে না, আর সর্বদা মুখে হাসি রাখতে হবে।’ ১৯০৭ সালে উত্তর জাপানের নিইগাতা শহরে জন্মগ্রহণ করেন গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে। তিনি গ্রিনিস ওয়ার্ল্ডের তরফে সার্টিফিকেটও পেয়েছেন।
জাপানের এই বয়স্ক ব্যক্তি জানিয়েছেন, দাঁত না থাকলেও পুডিং এবং ক্রিম পাফ খেতে পছন্দ করেন তিনি। কারণ এই ধরণের খাবারগুলি দাঁত দিয়ে চাবাতে হয় না। এর আগে যে ব্যক্তি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ছিলেন, তাঁর নাম মাসাজো নোনাকা। তিনিও জাপানেরই নাগরিক ছিলেন। ২০১৯ সালে ১১৩ বছরে মৃত্যু হয় তাঁর।

গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে সম্পর্কে বলতে গিয়ে তাঁর বড় ছেলের পুত্রবধূ জানিয়েছেন, ওয়াতানাবেকে তিনি কখনও রাগতে দেখেননি। পাশাপাশি তিনি যথেষ্ট কেয়ারিং-ও। অন্যদিকে ওয়াতানাবে নিজের সম্পর্কে বলেছেন, ‘আমি মনে করি, এক ছাদের নীচে একটি বড় পরিবারের সাথে বসবাস করছি, এখানে নাতি-নাতনিরা আমার মুখের হাসি বাঁচিয়ে রেখছে।’ তাঁর এই কথা থেকেই পরিষ্কার তিনি তাঁর নাতি নাতনিদের কতটা ভালোবাসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close