প্রযুক্তির খবর

গ্রামীণফোনের গ্রাহকদের জন্য দারুণ সুখবর!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক : ‘ওকলা’ পরিচালিত ইন্টারনেটের গতি পরীক্ষায় চলতি বছরের প্রথম ও দ্বিতীয় প্রান্তিকে ‘দ্রুততম মোবাইল নেটওয়ার্ক’ এর স্বীকৃতি পেয়েছে গ্রামীণফোন। স্পিডটেস্ট অ্যাওয়ার্ড’ বিজয়ী নির্বাচনের জন্যে ‘স্পিড-স্কোর’প্রক্রিয়ায় মোবাইল অপারেটরদের ডাউনলোড এবং আপলোড স্পিড পরীক্ষা করার মাধ্যমে নেটওয়ার্ক স্পিড পারফরম্যান্সের ক্রম নির্ণয় করা হয়। গত ২০১৮ সালে ৯ দশমিক ২৫ স্কোর নিয়ে বিজয়ী হওয়ার পর থেকে পর্যায়ক্রমিকভাবে উন্নতকরণের মাধ্যমে ২০১৯ সালে ১০ দশমিক ৬০ স্কোর অর্জন করে গ্রামীণফোন।
এই অর্জন সম্পর্কে গ্রামীণফোনের ডেপুটি সিইও ও সিএমও ইয়াসির আজমান বলেন,আমরা এই পুরস্কারটি আমাদের গ্রাহকদের প্রতি উৎসর্গ করছি। গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে আমরা সবাই মিলে ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাচ্ছি এবং নিয়ন্ত্রক সংস্থার সাম্প্রতিক সময়ে আরোপিত অন্যায্য বিধিনিষেধ সত্ত্বেও আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

ইয়াসির আজমান বলেন, টানা দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশের দ্রুততম মোবাইল নেটওয়ার্ক হিসেবে ‘ওকলা অ্যাওয়ার্ড’ প্রাপ্তি হচ্ছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নেটওয়ার্ক আপগ্রেড করায় আমাদের সকল প্রয়াসের একটি স্বীকৃতিস্বরূপ। তবে আমাদের কাজ এখানেই শেষ নয় বরং ভবিষ্যতে উন্নয়ন ও উদ্ভাবনের এই ধারা বজায় রাখতে আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।
ওকলার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট জেমি স্টিভেন বলেন, বাংলাদেশের দ্রুততম নেটওয়ার্ক হিসেবে গ্রামীনফোনকে স্বীকৃতি দিতে পেরে আমরা আনন্দিত। এবছরের প্রথম এবং দ্বিতীয় প্রান্তিকে গ্রাহকদের স্বতঃস্ফূর্তভাবে গ্রহণ করা ‘স্পিডটেস্ট’ পরীক্ষার ফলাফল চুলচেরা বিশ্লেষণে অনবদ্য পারফর্মেন্স করার কারণেই এই স্বীকৃতি পেয়েছে গ্রামীণফোন।
২০১৯ সালের জুন মাস পর্যন্ত গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ কোটি ৫৩ লাখ। দ্বিতীয় প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটি নেটওয়ার্ক আধুনিকায়ন ও ৪জি সেবা সম্প্রসারণে ৩৮০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। ১৬ হাজারের ও বেশি সাইট নিয়ে গ্রামীণফোন নেটওয়ার্ক এখন ১০০ শতাংশই মোবাইল ব্রডব্যান্ড কাভারেজ দিচ্ছে।

আগাম বার্তা/এসআই

শেয়ার করুন

আপনি আরও যা পড়তে পারেন

Leave a Reply

Back to top button
Close