Bangladesh

দুই লকডাউনের মাঝে রাজধানী ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে লাখ লাখ মানুষ

; করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ৫ এপ্রিল শুরু হয়েছে লকডাউন। চলবে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত। এর দুই দিন পর ১৪ এপ্রিল দ্বিতীয় দফা লকডাউন শুরু হবে। এ লকডাউন অনেক কঠোর হবে বলে জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। দুই লকডাউনের মাঝে ১২ এবং ১৩ এপ্রিল দুই দিন সবকিছু খোলা থাকবে। এ দুই দিনে রাজধানী ছাড়ার জন‌্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন লাখ লাখ মানুষ। পরিবহন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ‌্য জানা গেছে।

দ্বিতীয় দফা লকডাউন ২১ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এর পর পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে লকডাউনের সময়সীমা বাড়তে পারে।

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউকালে এ ভাইরাসে আক্রান্তদের উপসর্গ ভিন্ন রকমের। আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। সরকার বাধ্য হয়ে পর পর দুই দফা লকডাউন দিচ্ছে। দুই লকডাউনের মাঝে দুই দিনের বিরতি আছে। অন্যদিকে, আগামী ১৪ এপ্রিল দ্বিতীয় লকডাউনের প্রথম দিনেই শুরু হবে রোজা।

গত ৩ এপ্রিল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ৫ এপ্রিল থেকে সপ্তাহব্যাপী লকডাউনের কথা জানান। এর পর থেকেই সাধারণ জনগণ শহর ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে যাওয়া শুরু করে। লকডাউন, কর্মক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা, সব মিলিয়ে লাখ লাখ মানুষ বাসে, ট্রেনে আর লঞ্চে করে শহর ছেড়েছে। এবারও তার ব্যত‌্যয় ঘটেনি।

১৪ এপ্রিল থেকে পুনরায় লকডাউনের কথা শোনার পর থেকে আবারও দলে দলে মানুষ শহর ছাড়তে শুরু করেছে। সরকারি আদেশের কারণে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় বাস চলাচল বন্ধ আছে। কিন্তু গ্রামমুখী মানুষের স্রোত থেমে নেই। তবে, গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই বেশিরভাগ মানুষের মধ্যে। গাদাগাদি করে যাচ্ছে তারা।

সরাসরি বাস না চলায় ভেঙে ভেঙে শহর ছাড়ছে মানুষজন। কেউবা অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাসে করে যাচ্ছে। সিএনজি অটোরিকশা নিয়েও অনেক পরিবারকে বাড়ির পথে রওয়ানা হতে দেখা গেছে।

সূত্রঃ zoombangla

Back to top button