offbeat news

ধনতেরাস ২০২০: মাত্র ৫ কাজ করলেই নিশ্চিত সাফল্য, হাতে আসবে প্রচুর টাকা

এবার ধনতেরাস ১২ ও ১৩ নভেম্বর এই দুদিনেই পালন করা হচ্ছে। ১২ নভেম্বর রাত ৯ টা ৩০ এ শুরু হওয়ার পর কৃষ্ণা ত্রয়োদশী চলবে ১৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬ টা অবধি। ধনেতারাসের দিন সোনা-রূপার কয়েন ও দেবী লক্ষ্মী-গণেশের প্রতিমা কেনার চল রয়েছে।

ধনতেরাসের দিনটি শপিংয়ের জন্য শুভ হিসাবে বিবেচিত হয় তবে খুব কম লোকই জানেন, এই দিনে কিছু বিশেষ জিনিস দান করাও খুব শুভ বলে মনে করা হয়। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী যা দান করলে বাড়িতে লক্ষ্মীদেবীর কৃপা দৃষ্টি পড়ে।

হলুদ কাপড় দান- ধনতেরাসের দিনে হলুদ রঙের পোশাক দান করা অত্যন্ত পবিত্র বলে বিবেচিত হয়। বিশ্বাস করা হয় যে এই দিনটিতে কোনও অভাবী ব্যক্তিকে হলুদ রঙের পোশাক দান করার মাধ্যমে একজন পুণ্য অর্জন করে। হলুদ কাপড়ের দান মহাদান নামেও পরিচিত।

দরিদ্র ব্যক্তিকে অন্নদান – ধনতেরাসের দিনে দরিদ্র ক্ষুধার্ত ব্যক্তিকে খাওয়ানোও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হয়। ধনতেরাসের দিন যে ব্যক্তি অনুদান দেয় তাকে দেবী লক্ষ্মী আশীর্বাদ দেয়।

ঝাড়ু দান- নতুন ঝাড়ু কিনে ধনতেরাসে পূজা করা মঙ্গলজনক বলে বিবেচিত হয়। আপনি যদি আর্থিক সংকটে লড়াই করে চলেছেন তবে ধনতেরাসের দিন ঝাড়ু দান করুন। এটি আপনার আর্থিক সঙ্কট দূর করবে।

মিষ্টি দান- ধনতেরাসের দিন মিষ্টি ও নারকেল দান করা অত্যন্ত শুভ বলে বিবেচিত হয়। এগুলি দান করলে জীবনে কখনও শস্য ও অর্থের সংকট আসে না।

লোহা দান- ধনতেরাসে লোহা কেনা নিষিদ্ধ, তবে এই দিনে লোহা দান করা অত্যন্ত পবিত্র বলে বিবেচিত হয়। কথিত আছে যে ধনতেরাসের দিনে লোহা দান করলে জীবনের দুর্ভাগ্য দূর হয়। এই দিনে যিনি লোহা দান করেন তিনি দেবী লক্ষ্মীর আশীর্বাদ পান।

প্রথম ভারতীয় তরুণী হিসেবে কান চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কার পেয়েছেন এই তরুণী। মুখোমুখি মধুরা পালিত I

Back to top button