রেসিপি

পূজায় কাটা মশলায় মাংস ঝোল

আগামবার্তা ডেস্ক : শুরু হয়ে গেছে পূজা। বাঙালির সেরা উৎসব। আর এই দূর্গা পূজা মানেই থাকে অনেক প্ল্যান। পূজা মানেই ঠাকুর দেখা, ঘোরা-ঘুরি, খাওয়া-দাওয়া আরো কত কি। পূজাতে শুধু যে খাওয়া দাওয়া তাই নয় এক্কেবারে ডায়েট ভুলে খাওয়া। আর সেখানে মটন হবে না তাই কী হয়? হুটহাট বাইরে থেকে না আনিয়ে ঘরেই বানিয়ে খেতে পারেন এই সব রেসিপি। চলুন দেখে নেয়া যাক কাটা মসলায় মজাদার মাংসঝোল। উপকরণ
মাটন-এক কেজি, পেঁয়াজ কুঁচি-ছয়টি বড়, রসুন-চার কোয়া, আদা-দুই ইঞ্চি, কাঁচা মরিচ-৫-৬টি, টকদই-২০০ গ্রাম, সরিষার তেল-দুই টেবিল চামচ,ঘি-দুই টেবিল চামচ, লবণ-স্বাদমতো, শুকনো মরিচ-৬-৮টি, লবঙ্গ-পাঁচটি, এলাচ-চারটি, দারচিনি-দুই ইঞ্চি, চিনি-এক টেবিল চামচ, হলুদ গুড়া-এক চা চামচ, কাশ্মীরি মরিচর গুড়া-এক চা চামচ, তেজপাতা-দুইটি পদ্ধতি
প্রথমে মাংসের টুকরাগুলো ধুয়ে পরিষ্কার করে শুকনা লঙ্কা, লবঙ্গ, গোলমরিচের গুড়া, এলাচ, দারচিনি, চিনি, হলুদ গুড়া, কাশ্মীরি মরিচ গুঁড়ো, পেঁয়াজ কুঁচি, আদা, রসুন, চেরা কাঁচা মরিচ ও সরষের তেল দিয়ে ভালোভাবে ম্যারিনেট করতে হবে। এর পর মুখবন্ধ পাত্রে ম্যারিনেট করা মাংস রেখে ডিপ ফ্রিজে আট ঘন্টার জন্য রেখে দিতে হবে।

আরো পড়ুন:- কোন কাজে ভয় পান প্রিয়াঙ্কা?

এর পর রান্নার জন্য কড়াইতে সরিষের তেল গরম করে তাতে তেজপাতা, শুকনা মরিচ, লবঙ্গ, কালো গোলমরিচ, দারচিনি ও এলাচ দিতে হবে। মসলা থেকে গন্ধ ছাড়লে এর পর মেরিনেট করে রাখা মাংস দিয়ে দিতে হবে। অবশ্যই রান্না জন্য ডিপ ফ্রিজ থেকে ঘন্টা দুয়েক আগে মাংস বের করে রাখতে হবে। এর পর ভালো করে কষিয়ে নিয়ে লবণ দিয়ে দিতে হবে। পাত্রের মুখটা বন্ধ করে অল্প আঁচে পনের মিনিট আভেনে রাখতে হবে। পাত্রের ঢাকনা খুলে টকদই দিয়ে ভালোভাবে নেড়েচেড়ে পুনরায় পাত্রের মুখ বন্ধ করে অল্প আঁচে ঘন্টাখানেকের জন্য রেখে দিতে হবে। তবে মাংস ধরে না যায় সেজন্য কিছুক্ষণ পরপর ঢাকনা খুলে অবশ্যই নেড়েচেড়ে দিতে হবে। এ সময়ের মাঝে মাংস থেকেই প্রয়োজনীয় জল বের হয়ে মাংস সিদ্ধ হবে। তবে যদি প্রয়োজন হবে সেক্ষেত্রে এক কাপ গরম জল দিতে দিতে পারেন। বেশ মাখামাখা হয়ে গেলেই তৈরি হয়ে যাবে কাটা মাংসের ঝোল।

বিষয়ঃ

Leave a Reply

Back to top button
Close