International

প্রবল বিস্ফোরণ, কালো ধোঁয়াতে ঢাকল গোটা আকাশ

কাবুলঃ  ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল আফগানিস্তান। সেখানের হেলমান্ড প্রদেশের দক্ষিণ প্রান্তে সাঙ্গিন জেলার একটি পশুবাজারে এই বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটেছে। জানা যাচ্ছে, বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে বহুদূর থেকে শব্দ শোনা যায়। কালো ধোঁয়াতে ঢেকে যায় গোটা আকাশ।
জানা যাচ্ছে, প্রবল এই বিস্ফোরণে এখনও পর্যন্ত ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। মৃতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন শিশুও আছে বলে জানা গিয়েছে। প্রবল এই বিস্ফোরণে বেশ কয়েকজন স্থানীয় মানুষজন গুরুতর জখম হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।
তাঁদের অবস্থা বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যাচ্ছে। ফলে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়ানোর সম্ভাবনা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। ঘটনার পর এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। নামানো হয়েছে সেনাকেও। গোটা এলাকা কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে।
যদিও এখনও পর্যন্ত কোনও জঙ্গি সংগঠন এই ঘটনার দায় নেয়নি। তবে প্রাথমিক ধারনা, এই ঘটনার পিছনে রয়েছে ইসলামিক স্টেটের জঙ্গি সংগঠনটি। তালিবানদের সঙ্গে জোট বেঁধে আফগানিস্তানের মাটিতে জঙ্গি কার্যকলাপ চালাচ্ছে এই জঙ্গি সংগঠনটি।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দক্ষিণ হেলমান্ড প্রদেশের ওই পশুবাজারটি খুবই বিখ্যাত। উট থেকে শুরু করে ছাগল, সবই পাওয়া যায়। ফলে ভিড়ও হয়। সেই মতো পশুবাজার বহু মানুষ জোড়ো হয়েছিল। চলছিল কেনাকাঁটা। আচমকাই প্রবল বিস্ফোরণ হয়।

জানা যাচ্ছে, একটি গাড়িতে জঙ্গিরা বোমা রেখে চলে যায়। সেটি নির্দিষ্ট টাইমে বিস্ফোরণ ঘটে বলে মনে করা হচ্ছে। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে মুহূর্তে কালো ধোঁয়াতে ঢেকে যায়। বহুদূর থেকে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। কিছুটা পরিস্থিতি ঠিক হলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায় শুধু মৃতদেহ। আতঙ্কে রীতিমত হুড়োহুড়ি বেঁধে যায়। এর ফলে অনেকে পদপিষ্ট হয়েও মারা যান বলে জানা যাচ্ছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আতঙ্ক।

অন্যদিকে, করাচিতে ভয়াবহ জঙ্গি হামলা। সোমবার সকালে স্টক এক্সচেঞ্জ বিল্ডিংয়ের মধ্যে ঢুকে হামলা চালায় জঙ্গিরা। অন্তত ২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এরপরই এই ঘটনারে দায় স্বীকার করল বালোচ লিবারেশন আর্মি। তারাই এই হামলা চালিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।
মাজিদ ব্রিগেড নামে বালোচ লিবারেশন আর্মির একটি ইউনিট এই হামলা করেছে। চারজন আত্মঘাতী জঙ্গি ছিল বলে স্বীকার করেছে ওই সংগঠন। চার জঙ্গিকেই নিকেশ করা সম্ভব হয়েছে।
এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সিন্ধ প্রদেশের গভর্নর। তিনি জানিয়েছেন, দ্রুত সবরকম পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

পরিবেশের বন্ধুরা, স্কুলেই চলছে সবুজ বাঁচানোর লড়াই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close