রুপচর্চা

ব্রণ ও বলিরেখা মুক্ত উজ্জ্বল ত্বক পেতে

আগামবার্তা ডেস্ক : মুখের ত্বকের সবচেয়ে বিশ্রি সমস্যা হলো ব্রণ আর বলিরেখা। এ দুটি সমস্যা নিয়েই কাটাতে হয় মেয়েদের। তবে এ থেকে সহজে রেহায়ই পেতে ব্যবহার করতে পারেন কলা। কলা শক্তির মহান উৎস এবং এটি সহজে নষ্ট হয় না। কলা, আর্দ্রতা, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ফটোকেমিক্যালস-সমৃদ্ধ তাই ত্বক, শরীর এবং চুলের পুষ্টি প্রদান করার জন্য এটি একটি দুর্দান্ত ঘরোয়া প্রতিকার। তাই আপনার নিত্য সৌন্দর্যচর্চার মধ্যে কলা ব্যবহারের সবচেয়ে ভাল উপায়ের একটি তালিকা তুলে ধরা হলো- ১) ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে
এক চা চামচ কমলার রস, এক চা চামচ মধু ও অর্ধেকটা কলা ভালো করে চটকে মিশিয়ে নিন। এই প্যাক-টি মুখ এবং ঘাড়ে ব্যবহার করুন। ১৫-২০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তাৎক্ষণিক ত্বকের পরিবর্তন দেখতে পাবেন। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে দারুণ একটি প্যাক এটি। ২) কালো দাগ দূর করতে
একটি পাকা কলা, এক টেবিল চামচ মধু ও এক টেবিল চামচ লেবুর রস- সবগুলো উপাদান মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এরপর প্যাক-টি ভালো করে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর প্যাকটি শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। আর দেখুন কলার ম্যাজিক! এই প্যাক-টি ত্বকের কালো দাগ দূর করে দিতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন:- গর্জিয়াস লুক পেতে মেকআপে গ্লিটার

৩) বলিরেখা দূর করতে
বলিরেখা দূর করতে অর্ধেকটা পাকা কলার পেস্ট, এক চা চামচ টকদই এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। প্রথমে মুখ ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। তারপর প্যাক-টি ব্যবহার করুন। প্যাক শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ৪) ব্রণ সারাতে
একটি পাকা কলা, আধা চা চামচ বেকিং সোডা এবং আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। যদি খুব বেশি ঘন হয়ে যায় তবে এরসঙ্গে সামান্য পানি মিশিয়ে নিতে পারেন। প্যাক-টি ত্বকে ব্যবহার করুন। ১০-১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক-টি ব্রণ প্রতিরোধ করে ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কমিয়ে দিয়ে থাকে। ৫) তেল নিয়ন্ত্রণের জন্য
নিত্য সৌন্দর্য্য চর্চার জন্য কলা ব্যবহারের উত্তম উপায় হল একটি মুখের প্যাক তৈরী করা। কলা, মধু ও লেবুর রস দিয়ে তৈরী মুখের প্যাক অত্যন্ত ফলপ্রদ মুখের শুষ্কতা বজায় রেখে তৈলাক্ততা দূর করতে। ৬) নিস্তেজ ত্বকের জন্য
কলার মধ্যে ভিটামিন সি একটি দুর্দান্ত উপায় যা ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। এর জন্য, কলার সাথে লেবুর রস ও চন্দন মেশাতে হবে। ৭) আদ্রতা বজায় রাখতে
পটাশিয়াম ও অন্যান্য খনিজ সমৃদ্ধ বলে কলা আদ্রতা ধরে রাখতে সক্ষম। কলা চটকে মুখে মেখে দশ মিনিট মিশ্রণটি বসতে দিন। এরপর নরম ও নমনীয় ত্বকের ছোঁয়া পেতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ৮) ব্রণের জন্য
কলার খোসা ব্রণের জন্য দায়ী রোগ জীবাণু (ব্যাকটেরিয়া) ধ্বংস করে ও জ্বালা কমাতে সাহায্য করে। শুধু ব্রণের ওপর কলার খোসার ভিতরের অংশটি ঘষুন। নিত্য সৌন্দর্য্য চর্চায় এটি সর্বোত্তম উপায়।

Leave a Reply

Back to top button
Close