International

মিয়ানমার থেকে এলো ১১৯২ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

মিয়ানমা’র থেকে পেঁয়াজ আম’দানি অব্যাহত রেখেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। সোমবার একদিনে নয় ব্যবসায়ীর কাছে ১৮টি ট্রলারে করে এক হাজার ১৯২ দশমিক ৬৭৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ টেকনাফ স্থলবন্দরে এসেছে।

চলতি জানুয়ারি মাসে ১১ দফায় মিয়ানমা’র থেকে নৌপথে ৪ হাজার ৭২১ দশমিক ৮৮৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আম’দানি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের কাস্টমস সুপার আফসার উদ্দিন। তিনি বলেন, গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয় ভারত। এরপর ৩০ সেপ্টেম্বর মিয়ানমা’র থেকে প্রথম চালানে ৬৫০ টন পেঁয়াজ আসে। এরপর থেকে সোমবার বিকেল পর্যন্ত মিয়ানমা’র থেকে ৬৫ হাজার ৪২৯ দশমিক ৯১৬ টন পেঁয়াজ আম’দানি করা হয়। সকালে ব্যবসায়ী যদুবাবুর ১৩৪ দশমিক ৩২৭; মো. ছৈয়দ করিমের ২৫৬ দশমিক ৬৩২; কাম’রুলের ১৪২ দশমিক ৫৭০; বাহদুরের ৭০ দশমিক ৬৩৬; আব্দুল জব্বারের ৮৫ দশমিক ৪২৭; শওকতের ২২৮ দশমিক ৮৬০; মোহাম্ম’দ সজিবের ২১৩ দশমিক ৮৫৫; মো. নাছিরের ১৭ দশমিক ৬০১; নুর মোহাম্ম’দের ৪২ দশমিক ৭৭১ মেট্রিক টন পেঁয়াজ স্থলবন্দর আসে। তবে এখনো পাচঁ শতাধিক মেট্রিক টন পেঁয়াজ খালাসের অ’পেক্ষায় ট্রলারগুলো নদীতে নোঙর করে আছে।

তিনি আরো বলেন, মিয়ানমা’র থেকে আরো কয়েকশ’মেট্রিক টন পেঁয়াজ ভর্তি একাধিক ট্রলার স্থলবন্দর পথে রওনা দিয়েছে। তবে দেশের স্বার্থে সংকট মোকাবিলায় পেঁয়াজ আম’দানি বাড়াতে আরো বেশি উৎসাহিত করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে স্থলবন্দর পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানের ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্ট টেকনাফ লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন বলেন, মিয়ানমা’র থেকে বেশি পরিমাণে পেঁয়াজ আম’দানি করছেন ব্যবসায়ীরা। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত ৯১টি পেঁয়াজ ভর্তি ট্রাক দেশের বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের উদ্দেশ্যে স্থলবন্দর ছেড়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close