Bangladesh

মুজিববর্ষে জমিসহ ঘর পাচ্ছেন ২৮৫ পরিবার

: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার স্বরূপ গাজীপুর জেলার ২৮৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ১১৭টি ঘর নির্মাণ সমাপ্ত হয়েছে।

শনিবার সারাদেশের ৬৯ হাজার ৯০৪ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ ঘর প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশব্যাপী বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় ভূমি ও গৃহহীণদের মাঝে এসব ঘর বিতরণ করা হবে। এসব ঘর সম্পূর্ণ সরকারি অর্থে নির্মিত হয়েছে।

‘মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ ঘোষণা বাস্তবায়নে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর দেওয়ার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় এ গৃহ প্রদান কর্মসূচি উদ্বোধন হবে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের মার্চ থেকেই সারাদেশে এ কর্মসূচি চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে ২৩ জানুয়ারি সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে জমি ও গৃহপ্রদান কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠান ও আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকালে গাজীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ভাওয়াল সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ সব তথ্য জানানো হয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস.এম. তরিকুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় গাজীপুর জেলায় মোট ২৮৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর প্রদান করা হবে। এরমধ্যে প্রথম পর্যায়ে ২১০টি ও দ্বিতীয় পর্যায়ে ৭৫টি ঘর প্রদান করা হবে।

প্রথম পর্যায়ে ২১০টি ঘরের মধ্যে কাপাসিয়ায় ১০০টি, কালিয়াকৈর উপজেলায় ৯০টি ও শ্রীপুর উপজেলায় ২০টি ঘর বরাদ্দ দেওয়া হবে। এর মধ্যে কাপাসিয়ায় ৪২টি, কালিয়াকৈর উপজেলায় ৫৫টি ও শ্রীপুর উপজেলায় ২০টি গৃহ নির্মাণ সম্পূর্ণ করা হয়েছে। এসব ঘর উপকারভোগীদের নামে কবুলিয়ত দলিল ও নামজারি করা হয়েছে। এসব ঘর আগামী ২৩ জানুয়ারি ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উপকারভোগীদের হস্তান্তর করবেন। দুই শতাংশ খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়ে দুই কক্ষবিশিষ্ট এসব ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

এছাড়াও তিনি আরো বলেন, দ্বিতীয় পর্যায়ে গাজীপুর সদরে ৫০টি ও কালীগঞ্জ উপজেলায় ২৫টি ঘর প্রদান করা হবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ মশিউর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মামুন সরদার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবুল কালাম, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) হাফিজা জেসমিন প্রমুখ।

সূত্রঃ zoombangla

Back to top button