International

যুগান্তকারী আবিষ্কার, দুই সূর্যের গ্রহের খোঁজ দিল নাসার কিশোর শিক্ষানবিশ

ওয়াশিংটন:  মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসায় ইন্টার্নশিপ করতে আসা ১৭ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থী পৃথিবী থেকে বহুদূরের এমন এক গ্রহের খোঁজ দিয়েছে, যে দুটি সূর্যকে কেন্দ্র করে ঘুরছে। নাসার ট্রানজিটিং এক্সোপ্ল্যানেট সার্ভে স্যাটেলাইট (টিইএসএস) মিশনে শিক্ষানবিশি করতে এসে উলফ কুকিয়ার নামের ওই শিক্ষার্থী এই গ্রহটি আবিষ্কার করেন বলে বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার এ টিইএসএস মিশন আমাদের সৌরজগতের বাইরের অনেক গ্রহের খোঁজ দিতে ভূমিকা রেখেছে।
তাদের সর্বসাম্প্রতিক আবিষ্কারের কৃতিত্বে ভাগ বসিয়েছে নাসার গডার্ড স্পেস ফ্লাইট সেন্টারে শিক্ষানবিশি করতে আসা কুকিয়ার।
১৭ বছর বয়সী এই হাইস্কুল শিক্ষার্থী পৃথিবী থেকে এক হাজার তিনশ আলোকবর্ষ দূরে পিক্টর নামের নক্ষত্রমন্ডলীতে একটি মহাজাগতিক কাঠামোর খোঁজ পান, যা দুটি নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করছে। কুকিয়ারের আবিষ্কৃত এ গ্রহটির নামকরণ করা হয়েছে টিওওয়াই ১৩৮৮বি। আকারের দিক থেকে এটি নেপচুন ও শনির মাঝামাঝি। যে দুটি সূর্যকে এই গ্রহ প্রদক্ষিণ করছে, তার একটি আমাদের সূর্যের চেয়ে ১৫ শতাংশ বড়। টিওওয়াই ১৩৮৮বি গ্রহের অপর সূর্যটি তুলনামূলকভাবে কিছুটা ছোট।
এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কুকিয়ার জানিয়েছেন, “ইন্টার্নশিপের তৃতীয় দিনে আমি টিওওয়াই ১৩৮৮বি-র একটি সংকেত দেখতে পাই। প্রথমে আমি ভেবেছি এটি কোনও নক্ষত্রের গ্রহণ, যদিও এর সময়কাল ছিল ভুল। পরে দেখা যায়, এটি একটি গ্রহ,”।

২০১৮ সালের এপ্রিলে মহাকাশযান ফ্যালকন ৯ থেকে টিইএসএসের স্যাটেলাইট নিক্ষেপ করা হয়; যা মহাশূন্যের বিভিন্ন অংশে টানা ২৭ দিন ধরে নজরদারি ও প্রতি ৩০ মিনিট পর পর ছবি তুলে পাঠাতে সক্ষম। এই ছবির সাহায্যে গবেষকরা ঘূর্ণায়মান বিভিন্ন নক্ষত্রের দিক থেকে আসা আলোর তারতম্য ধরতে পারেন। উজ্জ্বল নক্ষত্রমন্ডলীর পাঠানো আলো শনাক্তে টিইএসএস বেশ কার্যকরী হলেও বাইনারি নক্ষত্র সনাক্তে এটি তুলনামূলকভাবে দুর্বল বলে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close