আন্তর্জাতিক

রক্তে ভেসে যাবে কাশ্মীর : ইমরান




জম্মু-কাশ্মীর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার করার পরই সেখানে রক্তে ভেসে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কাশ্মীরে মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে বলেও দাবি করেন তিনি।তবে কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান বিশেষ এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চায় বলে অভিযোগ ভারতের।আর ভারতীয় গোয়েন্দারা জানিয়েছে, কাশ্মীরে জঙ্গি পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসলামাবাদ। এদিকে পাকিস্তানের ভেতর প্রবাহিত হওয়া নদীর পানি প্রত্যাহারের হুমকি দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।দিন যতই গড়াচ্ছে, ততই খারাপ হচ্ছে কাশ্মীরের সার্বিক অর্থনীতি। সেখানকার অর্থনীতির অন্যতম প্রধান চালিকাশক্তি আপেল বাণিজ্য ক্রমেই মুখ থুবড়ে পড়ছে।
কাশ্মীরিদের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার পর সৃষ্ট উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে সেখানকার যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে সামগ্রিক আপেল বাণিজ্যের ওপর।স্থানীয়রা বলছেন, আপেল পাড়ার জন্য শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। খুব দেরি হয়ে গেছে। এরইমধ্যে অর্ধেক আপেল নষ্ট হয়ে গেছে।আপেল রফতানি করার মতো কোনো যানবাহন নেই। শুধু যাদের নিজস্ব ট্রাক আছে তারাই কাশ্মীরের বাইরে আপেল পাঠাতে পারছেন।এরমধ্যেই কাশ্মীর পুলিশ জানিয়েছে, সম্প্রতি নিহত হওয়া আপেল চাষির হত্যাকারী জঙ্গি সদস্য একজন প্রাক্তন পুলিশ কর্মকর্তা। চাকরি ছেড়ে হিজবুল মুজাহিদিনে নাম লেখান ওই সদস্য।
এদিকে সংবিধান থেকে ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে সাধারণ কাশ্মীরিদের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার ৭৫তম দিনকে কাশ্মীর ডে হিসেবে পালন করেছে পাকিস্তান। এ উপলক্ষে শুক্রবার এক টুইটে কাশ্মীর ইস্যুতে আবারও ভারতকে সতর্ক করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি বলেন, মোদি সরকার দীর্ঘদিন ধরে কাশ্মীর অবরোধ করে রেখেছে।পুরো বিশ্ব কাশ্মীরের মানবাধিকার অবনতি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষেণ করছে উল্লেখ করে পাক প্রধানমন্ত্রী সতর্ক করে বলেন, সুযোগ পেলেই আন্দোলনে ফুঁসে উঠবে কাশ্মীরের সাধারণ মানুষ। এছাড়াও ওই টুইটে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও ব্যাপক সমালোচনা করেন তিনি।
তবে জাতিসংঘে ভারতের প্রতিনিধি দীপক মিশ্র পাকিস্তানকে ইঙ্গিত করে বলেছেন, একটি দেশ কাশ্মীর ইস্যুতে ফাঁকা বুলি আওড়াচ্ছে। ইসলামাবাদ কাশ্মীরে বিশেষ এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চায় বলে অভিযোগ করেন তিনি।এদিকে কাশ্মীর ইস্যুতে উত্তেজনায় শুক্রবার হরিয়ানায় একটি নির্বাচনী জনসভায়, পাকিস্তানের ভেতর প্রবাহমান নদীর পানি বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।নরেন্দ্র মোদি বলেন, সবার আগে আমাদের কৃষকদের স্বার্থ। আমাদের নদীর এক ফোঁটা পানিও নষ্ট করতে চাই না। পাকিস্তানের ভেতর প্রবাহিত হওয়া নদীর পানির বিষয়ে খুব শিগগিরই সিন্ধান্ত নেওয়া হবে। পরিষ্কার করে বলতে চাই, আমি একবার যে বিষয়ে পরিকল্পনা করি, তা যে করেই হোক বাস্তবায়ন করি।
একইদিন সংবাদ সম্মেলন করে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, নদীর পানি প্রত্যাহার ইস্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বক্তব্য উসকানিমূলক। তবে নয়াদিল্লী যদি পানি প্রত্যাহারের মতো সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে তা আগ্রাসন হিসেবে বিবেচনা করে উপযুক্ত জবাব দেবে ইসলামাবাদ।





Previous articleস্ত্রীকে হ’ত্যার পর পোলাও মাংস রান্না করে উৎসব করলেন স্বামী

Leave a Reply

Back to top button
Close