Economy

রফতানিতে উৎসাহিত করতে সম্মাননা দেবে পাট মন্ত্রণালয়

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ঢাকা: বস্ত্র খাতের উন্নয়ন ও রফতানিতে উৎসাহিত করতে নয়টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়। জাতীয় বস্ত্র দিবস-২০১৯ উপলক্ষে নেওয়া মূল অনুষ্ঠানে নির্বাচিতদের হাতে এই সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হবে। বিজ্ঞাপন মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) সকালে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া এ কথা জানান। গত ডিসেম্বরে জাতীয় বস্ত্র দিবস-২০১৯ পালন করার কথা থাকলেও অনিবার্য কারণে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়। বস্ত্র দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) আগামী ৯ থেকে ১১ জানুয়ারি তিন দিনব্যাপী বহুমুখী বস্ত্র মেলার আয়োজন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন। এবারের জাতীয় বস্ত্র দিবসের প্রতিপাদ্য— ‘বস্ত্র খাতের বিশ্বায়ন-টেকসই উন্নয়ন’। মূল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীরপ্রতীক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, শ্রমপ্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মির্জা আজম। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখছে তৈরি পোশাকখাত। দেশের রফতানি আয়ের ৮৪ দশমিক ২০ শতাংশ অর্জিত হয় এই খাত থেকে। দেশের মোট জিডিপির প্রায় ১২ শতাংশ আসে বস্ত্রখাত থেকে। তৈরি পোশাক শিল্পের সম্প্রসারণ বাংলাদেশের সমাজ জীবনে এক উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এনেছে। বর্তমানে বস্ত্র খাতে প্রায় ৫০ লাখ মানুষ কাজ করছে। এর মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশই নারী। বস্ত্র শিল্পের উন্নয়ন ও বিকাশে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। নিবন্ধিত বস্ত্র শিল্প প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের মাধ্যমে কমপ্লায়েন্স পর্যবেক্ষণ ও নিশ্চিতকরণে যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। দেশের অভ্যন্তরীণ বস্ত্রের চাহিদা পূরণ, রফতানি বাড়ানো এবং ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে ও বস্ত্র শিক্ষার ক্ষেত্রে চাহিদাভিত্তিক মানবসম্পদ উন্নয়ন ও দক্ষ জনবল সৃষ্টি করতে বস্ত্র আইন, ২০১৮ ও বস্ত্রনীতি, ২০১৭ প্রণয়ন করা হয়েছে— বলেন লোকমান হোসেন মিয়া। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র অধিদফতরের মহাপরিচালক দিলীপ কুমার সাহা, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস করপোরেশনের (বিটিএমসি) চেয়ারম্যান ব্রি. মুহাম্মদ কামরুজ্জামান, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গুলনার নাজমুন নাহার, মোহাম্মদ আবুল কালাম, মো. মকবুল হোসেন। বিজ্ঞাপন সারাবাংলা/এটি
সূত্রঃ সারাবাংলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close