প্রযুক্তির খবর

শেষ কবে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছেন জানে ফেসবুক!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক: বলা হচ্ছে, জীবন যতই ডিজিটাল হচ্ছে, ততই হারাচ্ছে আমাদের গোপনীয়তা। প্রতিদিনের জীবন থেকে শুরু করে আমাদের বাড়ির অন্দরমহলের খবর- কিছুই নেই গোপন প্রযুক্তির কাছে। আমাদের যেসব গোপনীয় বিষয় ফেসবুক জানে, এর মাঝে আছে একান্ত গোপনীয় বিষয়ও। শেষ কবে পার্টনারের সঙ্গে শারীরিকভাবে মিলিত হযেছেন- এমন অনেক ব্যক্তির তথ্যই এখন ফেসবুকের হাতে।
সম্প্রতি বাজফিড নিউজ নামে একটি ওয়েবসাইট ব্রিটেনের গোপনীয়তা বিষয়ক তদন্ত সংস্থা প্রাইভেসি ইন্টারন্যাশনালের বরাত দিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তাতে উল্লেখ করা হয়, অনেক মানুষের শারীরিক মিলনের ট্র্যাক রেকর্ড আছে ফেসবুকের কাছে। আর ফেসবুক এই তথ্য পেয়েছে ‘মায়া’ এবং ‘এমআইএ’ নামের দুটি স্মার্টফোনভিত্তিক অ্যাপস থেকে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই অ্যাপসগুলো নারীদের ঋতুচক্র ট্র্যাকিং করে। আবার অনেক নারী গর্ভ ধারণের সঠিক সময় বা সেফ পিরিয়ড জানতেও ব্যবহার করেন এই অ্যাপসগুলো। আর এসব তথ্য জানতে ব্যবহারকারীকে অ্যাপসে দিতে হয় বিভিন্ন গোপনীয় এবং সংবেদনশীল তথ্য। তার একটি হচ্ছে, শেষ কবে বা কোন কোন দিন শারীরিক মিলনে লিপ্ত হয়েছেন সেই নারী ব্যবহারকারী।
শেষ কবে মাসিক হলো, কেউ জন্মনিরোধক পিল নিচ্ছেন কি-না এবং নিয়ে থাকলে কোন কোম্পানির- এসব তথ্যও দিতে হয় ব্যবহারকারীদের। ব্যবহারকারীদের শারীরিক মিলনের ইচ্ছা, মুড এসব তথ্যও জানতে চায় অ্যাপসগুলো।
এ পর্যন্ত ঠিকই ছিল, কিন্তু সমস্যা হলো তখন, যখন ব্যবহারকারীদের এসব তথ্য ফেসবুক ডেভেলপারদের সঙ্গে বিনিময় করে অ্যাপসগুলো। নিজেদের প্ল্যাটফর্মে কিছু ফিচার আপডেট করার ফলে ফেসবুক ডেভেলপাররা স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেতে শুরু করে এসব ডাটা।
এসব ডাটা ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের এলগরিদম সাজিয়ে নিজেদের ব্যবহারকারীদের বিজ্ঞাপন দেখায় ফেসবুক।
প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্লে-স্টোর থেকে মায়া অ্যাপসটি ৫০ লাখ বার এবং এমআইএ অ্যাপসটি ২০ লাখ বার ডাউনলোড করেছেন ব্যবহারকারীরা।

আগাম বার্তা/এসবি

শেয়ার করুন

আপনি আরও যা পড়তে পারেন

Leave a Reply

Back to top button
Close