Islam

সূর্যের তাপে করোনা ধ্বংসের পদ্ধতি জানালেন মার্কিন দুই বিজ্ঞানী

সূর্যের তীব্র আলো মাত্র ৩৪ মিনিটের মধ্যে ৯০ শতাংশ করো’নাভাই’রাস ধ্বংস করতে পারে—এমনটাই দাবি দুই বিজ্ঞানীর। তারা হলেন- যু’ক্তরাষ্ট্রের খ্যাতনামা বিজ্ঞানী লুইস সাগ্রিপান্তি এবং ডেভিড লিটল।

গবেষণাপত্রটি ফটোক্যামিস্ট্রি এবং ফটোবায়োলজি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। এরপরই এই খবরকে আশাব্যাঞ্জক হিসেবে উল্লেখ করেছেন অনেকেই। খবর ডেইলি মেইল

সূর্যের ইউভি রশ্মি (আল্ট্রাভায়োলেট রেডিয়েশন বা অ’তি বেগুনি রশ্মি) বছরের বিভিন্ন সময় বিভিন্ন শহরে ভাই’রাসটি কী’ভাবে ধ্বংস করতে পারে ওই গবেষণায় তা বিশ্লেষণ করা হয়েছে। তা থেকে জানা যায়, গ্রীষ্মে বেশিরভাগ মা’র্কিন শহর এবং বিশ্বের অন্যান্য শহরে দুপুরের সূর্যের আলো পৃষ্ঠের ওপরে থাকা ৯০ শতাংশ করো’না ধ্বংস করতে পারে।

গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, বিশ্বের বিভিন্ন জনবহুল শহরে গ্রীষ্মকালে সার্স-কোভ-২ ভাই’রাস তুলনামূলকভাবে দ্রুত নিষ্ক্রিয় হওয়া উচিত। ডিসেম্বর থেকে মা’র্চ সময়কালে ভাই’রাসটি একদিন বা তারও বেশি সময় পৃষ্ঠের উপরে বেঁচে থাকতে পারে। করো’নার বিস্তার এবং মহামা’রির সময়কাল কমাতে সূর্যের আলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

এর আগে আরেক মা’র্কিন বিজ্ঞানী উইলিয়াম ব্রায়ান বলেন, ২১ থেকে ২৪  ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় (২০ শতাংশ আর্দ্রতা), করো’নাভাই’রাস মাত্র আধঘণ্টার মধ্যে অর্ধেক হয়ে গেছে। দরজার হাতল এবং স্টেনলেস স্টিলের ক্ষেত্রে একই প্রভাব দেখা গেছে। আর্দ্রতাকে ৮০ শতাংশ বাড়ানোর পরেই দেখা গেছে ৬ ঘণ্টার মধ্যে করো’না অর্ধেক জীবাণু ধ্বংস হয়েছে।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে বলেছে, সূর্যের আলো করো’নাভাই’রাসকে প্রতিরোধ করতে পারে না। রোদের মধ্যে অবস্থান করা বা ২৫ ডিগ্রির বেশি তাপমাত্রাও করো’নাভাই’রাস প্রতিরোধে সক্ষম নয়। আবহাওয়া যেমনই  হোক, করো’নায় আ’ক্রান্ত হওয়ার ঝুঁ’কি রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close