Saidpurসৈয়দপুর

সৈয়দপুরে সকালে হাটতে বের হয়ে পিকআপের ধাক্কায় দাদা-নাতির মর্মান্তিক মৃত্যু! – আগাম বার্তা

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- নীলফামারীর সৈয়দপুরে পিকআপের ধাক্কায় রহমত উল্লা প্রামানিক (৬০) ও তুরাগ (২) নামে দুইজন নিহত হয়েছে। নিহতরা সম্পর্কে দাদা-নাতি।

বুধবার (২৬ জুন) সকাল ৮টার দিকে সৈয়দপুর-নীলফামারী সড়কের ওয়াপদা নয়া হাটে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় স্থানীয় জনতা চালকসহ পিকআপটিকে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওয়াপদা নতুনহাট এলাকার মৃত. রজব আলী প্রামানিকের ছেলে পিডিবির অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী রহমতুল্লাহ প্রামানিক তার নাতি তুরাগকে নিয়ে রাস্তার পাশে হাঁটছিলেন। এমন সময় হঠাৎ করে পিছন দিক থেকে আসা একটি পিকআপ তাদের প্রচন্ডভাবে ধাক্কা দেয়। এতে তারা পড়ে যান এবং পিকআপটির নিচে চাপা পড়েন। এসময় ঘটনাস্থলেই রহমতুল্লা প্রামানিক মারা যান এবং গুরুতরভাবে আহত শিশুটিকে উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। দায়িত্বরত চিকিৎক তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় দ্রুত তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। শিশু তুরাগ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যায়।

এদিকে, দাদা-নাতিকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় পিকআপটির চালক ও হেলপার জনতার হাতে আটক হয়। আটক চালক সৈয়দপুর পৌর এলাকার কয়া গোলাহাট সরকার পাড়ার মঞ্জুর আলীর ছেলে মো: রিমন (১৭) এবং হেলপার একই এলাকার মো: সাবেদ আলীর ছেলে মো: আবু রায়হান (১৬)। তারা দুজনই নাবালক।

এসময় উত্তেজিত জনতা পিকআপের চালক ও হেলপারকে বেদম মারপিট করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের আটক করে পিকআপটি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় ওয়াপদা নতুনহাট এলাকাবাসী সৈয়দপুর-নীলফামারী সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) অশোক কুমার পালের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে অবরোধ তুলে নেয়।

সৈয়দপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পালে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রসঙ্গত, সৈয়দপুর শহরের এই ওয়াপদা নতুন হাট এলাকায় গত এক মাসে প্রায় ৫টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে ৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় ৪ জন।

Leave a Reply

Back to top button
Close