offbeat news

হোলিতে কেন সাদা পোশাকের ট্রেন্ড বাজার কাঁপাচ্ছে…

কলকাতা: সামনে আসছে হোলি ২০২১। এই সময়ে গোটা দেশ রঙিন খেলায় মেতে উঠবে। সঙ্গে থাকবে আনন্দের উল্লাস। তবে প্রতি বছরই হোলির একটা নতুন ট্রেন্ড দেখা যায় যে সাদা পোশাক। ছেলে-মেয়ে, বৃদ্ধ-বৃদ্ধা নির্বিশেষে সকলেই চেষ্টা করেন সাদা পোশাকে এই উৎসবে অংশ নেওয়ার। ছেলেরা পরেন সাদা কুর্তা বা পাঞ্জাবি বা টি শার্ট আর মেয়েরা পরেন সাদা কুর্তি বা চুড়িদার অথবা শাড়ি।

অথচ কোথা থেকেই এলো এই সাদা পোশাকের ট্রেন্ড সেটা কি জানেন? হোলি খেলার পর সেই সাদা পোশাক হয় লাল-নীল-হলুদ-সবুজ আবিরে রঙিন। বিভিন্ন জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এই রঙের পোশাকে একে অপরকে ভালোবাসার আবির লাগাতে থাকে ধনী-দরিদ্র ভুলে। কিন্তু কেন এই রঙের পোশাকই পরা হয় এই বিশেষ দিনে? জানুন নিচে।

১. সাদা রঙ যে শান্তির প্রতীক তা আমরা সবাই জানি। এই দিন জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল ভারতবাসী এই উৎসবে সামিল হয় নিজেদের মধ্যেকার বিভেদ ভুলে। সেই একতায় মিশে যায় মনের রঙ। ফলে একটা সমানতা ও ঐক্যভাব নজরে পড়ে ঐদিন।

আরো পোস্ট- গরমে স্বস্তি দেবে ডাবের জল, আর কী কী গুণ রয়েছে

২. শাস্ত্র বলছে হোলির উৎসব অশুভ শক্তিকে দমন করে শুভ শক্তির জয়লাভকে বোঝায়। প্রথম দিন হোলিকা দহন পর্ব পালিত হয়। আর দ্বিতীয় দিন হয় রঙের এই খেলা। সেই শুভ শক্তির বিজয়গাঁথাকে স্মরণ করাতেই হয় এই আয়োজন।

৩. সাদা রঙের উপর অন্য যে কোনো রঙ খুব ভালো মতো ফুটে ওঠে। পাশাপাশি এই রঙটি আভিজাত্যেরও প্রতীক। হোলির দিন তাই সাদা রঙের পোশাকের বিশেষ্যত্বই হয় আলাদা।

৪. আবার অনেকে এটাও চান যে তার গায়ে যে রঙগুলি ছড়িয়ে রয়েছে সেগুলি যেন ভালো মতো ফুটে ওঠে। সেখানে থাকে ভালোবাসার স্মৃতি। তাই সাদা পোশাকটি হয়ে ওঠে যেন সাদা ক্যানভাস।

৫. সাদা পোশাকে নানা রঙের সমাহারে ক্যামেরায় ভালো ছবি ওঠে। যারা ছবিপ্রেমী বা সেলফি তুলতে ভালোবাসে তাদের জন্যে পোশাকের এই সাদা রঙটিই আদর্শ এই দিনের জন্যে।

লাল-নীল-গেরুয়া…! ‘রঙ’ ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা ‘খাচ্ছে’? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম ‘সংবাদ’!

‘ব্রেকিং’ আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের।

কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে ‘রঙ’ লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে ‘ফেক’ তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই ‘ফ্রি’ নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.
হ্যাঁ, আমি অনুদান করতে ইচ্ছুক >

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।

Back to top button