Education

১১তম দিনেও আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউ‌জি‌সি) থেকে ইতিহাস বিভাগের অনুমোদন দাবিতে চলমান আন্দোলনের ১১তম দিন বিক্ষোভে উত্তাল রয়েছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

|আরো খবর

  • জামা-জুতা-ব্যাগ পাবে প্রাথমিক শিক্ষার্থীরা
  • সেতুমন্ত্রীর গাড়ি থামিয়ে দিলেন শিক্ষার্থীরা
  • অষ্টম দিনেও অবস্থানে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

রোববার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। সেখানে বসে আন্দোলন শুরু করে ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীসহ অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের শ্লোগানে কম্পিত হয়ে ওঠে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস।
লাগাতার আন্দোলনে বিশ্ববিদালয়ের সকল ধরনের ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছে শিক্ষার্থীরা। প্রশাসনিক ও একাডেমিক ভবনে তালা মেরে দেয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করবে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। সেখান থেকে নতুন কর্মসূচীর ঘোষণা আসতে পারে।
আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ৩য় বর্ষের ছাত্র কারিমুল হক বলেন, আমরা ইতিহাস বিভাগের অনুমোদনের দাবিতে ১১ দিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে আসছি। নতুন করে কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে। সেজন্য দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। আমাদের দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাব।
প্রসঙ্গত, ৬ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) অনুষ্ঠিত এক সভায় বিশ্ব‌বিদ্যালয়টিতে ইতিহাস বিভাগের অনুমোদন না দিয়ে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি না করার নির্দেশ প্রদান করায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামে। বর্তমানে এ বিভাগটিতে ৪১৩ জন শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত।
বাংলাদেশ জার্নাল/ এমএম
সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close