International

২০১৩-তেই উহানের ল্যাবে ছিল COVID-19-এর মত ভাইরাস: রিপোর্ট

বেজিং: করোনা ভাইরাস কী সত্যিই ২০১৯-এর আগে ছিল না? চিনে কোথা থেকে হাজির হল এই ভাইরাস? এখনও রয়ে গিয়েছে এসব প্রশ্ন। তবে এই বিষয়েই আবারও সামনে এল বেশ কিছু তথ্য। জানা যাচ্ছে, ২০১৩ সালে উহান ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজিতে গিয়েছিল করোনা ভাইরাসের স্যাম্পেল।
‘সানডে টাইমস’-এ প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৩-তে একটি ঘটনা ঘটেছিল, যার সঙ্গে এই করোনা ভাইরাসের সম্পর্ক আছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।
ইউনান প্রদেশের একটি গুহায় ছিল অনেক বাদুড়। আর সেগুলো পরিস্কার করতে গিয়ে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পড়ে ছয় কর্মী। তাদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যুও হয়। অনুমান করা হয়েছিল যে, বাদুড় থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হওয়াতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিল ওই কর্মীরা।
‘সানডে টাইমস’-এর রিপোর্ট বলছে, উহানের গবেষক শি ঝেংলি ওই গুহায় গিয়ে বাদুড়ের ভাইরাস নিয়ে গবেষণা চালিয়েছিলেন। সম্প্রতি তিনি একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, এই কোভিড-১৯-এর সঙ্গে RaTG13 ভাইরাসের মিল রয়েছে। আর সেটাই RaTG13 ভাইরাসই মিলেছিল ওই গুহা থেকে।

এর কিছু আগে প্রকাশিত হওয়া এক রিপোর্ট থেকে সামনে আসে নয়া তথ্য। জনা গিয়েছে প্রায় দুই বছর আগেই চিনের মার্কিন দূতাবাসের তরফে এই উহান ল্যাবের বায়ো নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। কারণ ওই ল্যাবে মারাত্মক ভাইরাস এবং সংক্রমণ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা চালানো হচ্ছিল বলে দাবি। তবে এই খবর সামনে আসাতে আন্তর্জাতিক নিরাপত্তার খাতিরে ফের প্রশ্নের মুখে পড়বে চিন এমনটা নিশ্চিত ভাবে মনে করছেন আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞরা।

প্রাথমিক ভাবে জানা যায় ওই ল্যাবের এক ইন্টার্ন এর বন্ধু প্রথম সংক্রমিত হওয়াতে তাকে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছিল। কিন্তু কিভাবে ওই ভাইরাস ল্যাবের বাইরে এল তা নিয়ে এখনও পর্যন্ত সামনে আসে নি কোন তথ্য। মনে করা হচ্ছে সেখান থেকেই কোন ভাবে ইউহানের ওই বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। আর তারপর সেখান থেকে গোটা বিশ্বে তা মহামারীর রূপ নেয়।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close