Technology

VPN : ভারতে ভিপিএন বন্ধ করতে চাইছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক! কিন্তু কেন?

লকডাউনের জেরে ওয়ার্ক ফ্রম হোম হওয়ার পর থেকেই ভিপিএন (VPN) বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক পরিষেবা ব্যবহারের রমরমা দেখা গিয়েছে। এই পরিষেবায় ইন্টারনেট ব্যবহারকারী কোথায় আছেন, কী তার আইপি পরিচয় সবটা জানতে পারা মুশকিল হয়ে যায়। সূত্রের খবর এই পরিষেবাকেই এবার বন্ধ করে দিতে চলেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। 
ভিপিএন (VPN) ব্যবহারের আরও বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে।  নিষিদ্ধ সাইটে যাতায়াত করলেও আপনার নাম-ধাম থাকবে গোপন থাকত। এছাড়াও কোনও ওয়েবসাইট টেলিকম কোম্পানি নিষিদ্ধ করে রাখলে ভিপিএনের সাহায্যে সেটি ব্য়বহার করা যেত। এই পরিষেবাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আর্জি জানিয়েছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি, এমনটাই খবর।

আরও পড়ুন, New IT Rules: দেড়মাসে দেশজুড়ে ৩০ লক্ষেরও বেশি অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করল Whatsapp
গোটা বিশ্বেই ভিপিএন পরিষেবা ব্যবহার করা হয়। ওয়ার্ক ফ্রম হোমে ক্ষেত্রে যেমন অসুরক্ষিত ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে অফিসের সিস্টেম ফাইল ব্যবহার করার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করা হয়। অনলাইনে ব্যাঙ্ক পরিষেবা ব্যবহারের জন্যও ভিপিএন ব্যবহৃত হয়। ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) এর মাধ্যমে কোনও পাবলিক নেটওয়ার্কের ভিতরেই একটি প্রাইভেট নেটওয়ার্ক তৈরি করা হয়। যেখানে কম্পিউটিং ডিভাইসগুলি সরাসরি প্রাইভেট নেটওয়ার্কের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে। এরপর ভার্চুয়াল পয়েন্ট টু পয়েন্ট সংযোগ স্থাপন করে ভিপিএন। 
উল্লেখ্য, বিশ্বে ভিপিএন ব্যবহারকারীদের তালিকা তৈরি করে যে সংস্থাটি তাদের প্রকাশিত রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে ভিপিএন ব্যবহারকারীর সংখ্যার নিরিখে ভারত বিশ্বে সর্বোচ্চ। দেশের সাইবার নিরাপত্তার দিকে লক্ষ্য রাখতেই এই পরিষেবাকে নিষিদ্ধ ঘোষণার আবেদন করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এর মাধ্যমে বড় কোনও অপরাধ ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশও করা হয়েছে।
(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Back to top button