Technology

Whatsapp Privacy policy নিয়ে বিতর্কের ঝড়, অভিযোগ তথ্য চলে যাচ্ছে ফেসবুকের হাতে

: বিতর্কের কেন্দ্রে হোয়াটসঅ্যাপ। চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে, ইউজারদের নোটিফিকেশন পাঠিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়ে দেয়, তাঁরা পরিষেবা সংক্রান্ত শর্তাবলী ও গোপনীয়তা রক্ষা নীতিতে পরিবর্তন করেছে। এরফলে ইউজারদের তথ্য ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পেরেন্ট সংস্থা ফেসবুকের সঙ্গে শেয়ার করবে হোয়াটসঅ্যাপ। তবে এরফলে ইউজারদের কোনও তথ্য স্টোর বা সংরক্ষিত করা হবে না বলে জানানো হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপের এই ঘোষণার পর থেকেই সোশাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড়। গ্রাহকদের কাছে যে কারণে হোয়াটসঅ্যাপ সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়, সেই এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশন-কেই হোয়াটসঅ্যাপ বদলে ফেলতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
তবে হোয়াটসঅ্যাপ প্রধান টুইট করে আশ্বাস দিয়েছেন,  হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের তথ্য ফেসবুককে দেওয়ার বিষয়ে নীতিতে কোনও বদল হচ্ছে না। হোয়াটসঅ্যাপের প্রধান উইল ক্যাথকার্ট জি ২৪ ঘণ্টাকে  জানিয়েছেন, ‘ ‘স্বচ্ছতা আরও বাড়ানোর জন্য আমরা গোপনীয়তা নীতি আপডেট করেছি। তথ্য গোপনীয়তা নিশ্চিত করতে এবং ব্যবহারকারীদের মধ্যে সু-পরিকল্পিত যোগাযোগের চ্যানেল তৈরি করা। এই পরিবর্তনগুলি হোয়াটসঅ্যাপের ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগের উপর প্রভাব ফেলবে না তা নিশ্চিত করতে পারি। এনক্রিপশন নীতিটি আমাদের শেষ অবধি অক্ষুণ্ণ। ব্যবহারকারীরা ফেসবুকের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে কোনও ব্যবসা করতে চান কিনা তা নিশ্চিত হওয়া চাই।  উদ্বিগ্ন হওয়ার দরকার নেই”।

 
I’ve been watching a bunch of discussion this week about the privacy policy update we’re in the process of making @WhatsApp and wanted to share some thoughts.
Thread 

— Will Cathcart (@wcathcart) January 8, 2021
 
I want to share how committed everyone @WhatsApp is to providing private communication for two billion people around the world. At our core, that’s the ability to message or call loved ones freely protected by end-to-end encryption and that’s not changing.
— Will Cathcart (@wcathcart) January 8, 2021
 
 পাশাপাশি তিনি টুইট করে জানিয়েছেন,  “ব্যক্তিগত গোপনীয়তা সংক্রান্ত নীতিতে আমরা যে বদল আনার কথা ঘোষণা করেছি, সে বিষয়ে গত কয়েকদিন ধরে অনেক আলোচনা হচ্ছে। তার পরিপ্রেক্ষিতেই আমি কিছু কথা জানাতে চাই। সারা বিশ্বে ২০০ কোটি মানুষের ব্যক্তিগত আলাপচারিতা গোপনীয় রাখার বিষয়ে দায়বদ্ধ হোয়াটসঅ্যাপ। আপনারা প্রিয়জনের সঙ্গে যে বার্তার আদানপ্রদান করছেন বা হোয়াটসঅ্যাপ কল করে যে কথাবার্তা চালাচ্ছেন, তা আপনাদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। এ বিষয়ে আমাদের নীতিতে কোনও বদল আসছে না। ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন’-এর ফলে আমরা আপনাদের ব্যক্তিগত মেসেজ বা কল দেখতে ও জানতে পারি না। ফেসবুকও এ বিষয়ে কোনও তথ্য পাচ্ছে না। আমরা সারা বিশ্বে এই প্রযুক্তি বজায় রাখার বিষয়ে দায়বদ্ধ।’

Back to top button